চট্টগ্রামের জয়রথ চলছেই

Musaddik Mitu
  • প্রকাশিত সময় : বৃহস্পতিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০২০
  • শেয়ার করুন

  • Facebook

হোম অফ ক্রিকেট মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজকের দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের অধিনায়ক মোহাম্মদ মিথুন!

প্রথমে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ পেয়ে ফরচুন বরিশালের পক্ষে ব্যাট হাতে ইনিংসের উদ্ভোদন করতে আসেন সাইফ হাসান ও ফরচুন বরিশালের দলপতি তামিম ইকবাল! ওপেনিং জুটিতে সাইফ-তামিম মিলে গড়েন ৮৭ রানের দুর্দান্ত পার্টনারশিপ! ব্যাক্তিগত ৪৭ রানে মুসাদ্দেক হুসাইন সৈকতের প্রথম শিকার হয়ে সাইফ হাসান সাজঘরে ফিরে গেলে ফরচুন বরিশালের ওপেনিং জুটির ইতি ঘটে!

সাইফের পর ক্রিজে আসেন পারভেজ হুসাইন ইমন! পারভেজ হুসাইন ইমন ক্রিজে আসার পর ব্যাক্তিগত ৪৩ রানে মুসাদ্দেক হুসাইন সৈকতের দ্বিতীয় শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরে যান তামিম ইকবাল! তামিমের পর ক্রিজে আসেন তৌহিদ হৃদয়! তৌহিদ হৃদয় ক্রিজে আসার পরপরই ব্যাক্তিগত ১৪ রানে জিয়াউর রহমানের প্রথম শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান পারভেজ হুসাইন ইমন!

ইমনের পর ক্রিজে আসেন আফিফ হুসাইন ধ্রুব! আফিফ হুসাইন ক্রিজে আসার পরপরই ব্যাক্তিগত ৪ রানে সাঞ্জিত সাহার প্রথম শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান তৌহিদ হৃদয়! হৃদয়ের পর ক্রিজে আসেন মেহেদি হাসান মিরাজ! ক্রিজে আসার পর নামের পাশে ১ রান যোগ করেই সাঞ্জিত সাহার দ্বিতীয় শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরেন মেহেদি হাসান মিরাজ!

মিরাজের পর ক্রিজে আসেন ইরফান শুক্কুর! ক্রিজে এসে নামের পাশে ২ রান যোগ করেই জিয়াউর রহমানের দ্বিতীয় শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরেন ইরফান শুক্কুর! শেষদিকে আফিফ হুসাইন ধ্রুবের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে মাঝারি সংগ্রহ পায় ফরচুন বরিশাল!

শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৪৯ রান সংগ্রহ করে ফরচুন বরিশাল! ফরচুন বরিশালের পক্ষে ব্যাট হাতে সাইফ হাসান ৪৬(৩৩) রান, তামিম ইকবাল ৪৩(৩৯) রান ও আফিফ হুসাইন ধ্রুব ২৮(১৬)* রান করেন। গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের পক্ষে বল হাতে মুসাদ্দেক হুসাইন সৈকত, সাঞ্জিত সাহা ও জিয়াউর রহমান ২টি করে উইকেট নেন।

১৫০ রানের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের পক্ষে ব্যাট হাতে ইনিংসের সূচনা করতে ক্রিজে আসেন সৈকত আলী ও সৌম্য সরকার! ওপেনিং জুটিতে সৈকত আলী ও সৌম্য সরকার মিলে গড়েন ৭৯ রানের দুর্দান্ত পার্টনারশিপ! ব্যাক্তিগত ৩৯ রানে মেহেদি হাসান মিরাজের বলে সৈকত আলী সাজঘরে ফিরে গেলে ইতি ঘটে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের ওপেনিং জুটির!

সৈকতের পরে ক্রিজে আসেন মাহমুদুল হাসান জয়! দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে সৌম্য-জয় গড়েন ৪০ রানের দারুণ পার্টনারশিপ! ওপেনিংয়ে নেমে ব্যাট হাতে টুর্নামেন্টে নিজের প্রথম অর্ধশতক তুলে নেন সৌম্য সরকার! শেষ পর্যন্ত ব্যাক্তিগত ৬২ রানে সুমন খানের প্রথম শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরে যান সৌম্য সরকার!

সৌম্যর পর ক্রিজে আসেন অধিনায়ক মোহাম্মদ মিথুন! ক্রিজে এসে করে যেতে পারেননি ফিনিশিংটা! নামের পাশে ৩ রান যোগ করে সুমন খানের দ্বিতীয় শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরেন গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের অধিনায়ক মোহাম্মদ মিথুন! মিথুনের পর ক্রিজে আসেন মুসাদ্দেক হুসাইন সৈকত! মুসাদ্দেক হুসাইন সৈকতকে নিয়ে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন মাহমুদুল হাসান জয়!

শেষ পর্যন্ত ১৮.৪ ওভারে মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে ১৫৩ রান সংগ্রহ করে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম! গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের পক্ষে ব্যাট হাতে সৌম্য সরকার ৬২(৩৭) রান, সৈকত আলী ৩৯(৩৩) রান ও মাহমুদুল হাসান জয় ৩১(২৭)* রান করেন। ফরচুন বরিশালের পক্ষে বল হাতে সুমন খান ২ উইকেট, মেহেদি হাসান মিরাজ ১টি উইকেট নেন।

ব্যাট হাতে ৩৭ বলে ৭টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৬২ রানের ম্যাচ উইনিং ইনিংস খেলায় ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন সৌম্য সরকার।

ফরচুন বরিশালের একাদশঃ- সাইফ, তামিম(ক্যাপ্টেন), ইমন, হৃদয়, আফিফ, মিরাজ, ইরফান, সুমন, রাব্বি, শাকিল, তাসকিন।

গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের একাদশঃ- সৈকত, সৌম্য, জয়, মিথুন(ক্যাপ্টেন), মুসাদ্দেক, শামসুর, জিয়াউর, নাহিদুল, সাঞ্জিত, মেহেদি, রুয়েল।

 

,

মন্তব্য করুন

এই বিভাগের আরো খবর