ক্রিকেট ইতিহাসে আজকের দিনঃ আগস্ট – ২৯

Naim
  • প্রকাশিত সময় : শনিবার, ২৯ আগস্ট, ২০২০
  • ২৩০ ভিউ
  • শেয়ার করুন

📁ক্রিকেটের সাধারণ ঘটনা
⚫অ্যাশেজ ক্রিকেটের প্রথম দিন

১৮৮২, ক্রিকেট ইতিহাসে বিখ্যাত একটি টেস্ট ম্যাচ। বিখ্যাত হওয়ার কারন হিসেবে অবশ্য ১৩৮ বছরের পথচলা অ্যাশেজ ক্রিকেটের জন্মদিন এর কারনে। সেদিন ইংল্যান্ডের ওভাল মাঠে ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ার একটি টেস্ট ম্যাচ এর মাধ্যমে শুরু হয় অ্যাশেজ ক্রিকেট।

⚫ইংল্যান্ডের মাটিতে ১৭ বছর পর উইন্ডিজের প্রথম টেস্ট ম্যাচ জয়
২০০০ সালের পর ২০১৭ সালের আজকের এই দিনে ইংল্যান্ডের মাটিতে টেস্টে ইংল্যান্ডকে হারাতে সক্ষম হয় উইন্ডিজ। ঐতিহাসিক এই জয়ে উইন্ডিজ দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তখনকার সময়ে ২৩ বছর বয়সী তরুণ ক্রিকেটার শাই হোপ।

⚫অস্ট্রেলিয়ান অ্যারন ফিঞ্চের বিশ্বরেকর্ড
২০১৩, সেদিন টি-টোয়েন্টিতে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের বিশ্বরেকর্ডটি অ্যারন ফিঞ্চ নিজের করে নিয়েছিলেন। তার ৬৩ বলে ১৫৬ রানের এক ঝড় ইনিংসের পাশাপশি সাথে বিশ্ব ক্রিকেট দেখেছিল টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে দলীয়ভাবে ২৪৮ রান করে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রহ করার তান্ডব।

⚫ওয়ান অফ দ্যা টপ অলরাউন্ডার পারফরম্যান্স
১৯০৬, একটি টেস্টে দুই ইনিংসে যথাক্রমে ১১১ এবং ১১৭ রানের অপরাজিত ইনিংস, অন্যদিকে বোলিংয়ে প্রথম ইনিংসে ৭০ রানে ৬ উইকেট ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৪৫ রানে ৫ উইকেট নেওয়া জর্জ হার্স্ট অসাধারণ অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্স দেখিয়েছিলেন। এই জর্জ হার্স্ট ঐ একই বছরে এক সিজনে সবচেয়ে বেশি ২০০০ রান ও ২০০ উইকেট নিয়ে নিজেদের অসাধারণ দক্ষতার জানান দিয়েছিলেন।

⚫গ্রাহাম গোচ ও ডেভিড গাওয়ার অসাধারণ ব্যাটিং
১৯৮৫, গ্রাহাম গুচের ১৯৬ সাথে অধিনায়ক ডেভিড গাওয়ার ১৫৭ রান! ওভালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৩৫১ রানের অসাধারণ এক জুটি গড়ে ইংল্যান্ডকে এনে দিয়েছিলেন রানের পাহাড়। গাওয়ার পুরো সিরিজে ধারাবাহিকতা বজায় রেখে সংগ্রহ করেছিলেন ৭৩২ রান। সলম্যাচে ইংল্যান্ড ইনিংস এবং ৯৪ রানের জয়ের মাধ্যমে অ্যাশেজ পুনরুদ্ধার করেন।

⚫রফিকের ৫ উইকেটের সাথে অলক কাপালীর হ্যাটট্রিক
২০০৩, রফিকের ৫, উইকেট আর অলক কাপালীর হ্যাট্রিকে বাংলাদেশের টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথম বারের মতো প্রথম ইনিংসে লীড নিয়েছিলো পাকিস্তানের বিপক্ষে। তবুও নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে টাইগার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় মাত্র ৯৬ রানে গুটিয়ে গেলে পাকিস্তান ৯ উইকেটের বিশাল জয় পায়।

📁আজকের দিনে বাংলাদেশ ক্রিকেট
⚫ছেলেদের টেস্ট ক্রিকেট ম্যাচ

২০০১, বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তান
ফলাফলঃ বাংলাদেশ ইনিংস এবং ২৬৪ রানের ব্যবধানে পরাজিত।

⚫মেয়েদের টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ
২০১২, বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তান
ফলাফলঃ বাংলাদেশ ৬ উইকেটে পরাজিত।

📁আজকের দিনে যারা শতক করেছিলেন
১৯৮১, জেফ বয়কট (ইংল্যান্ড বনাম অস্ট্রেলিয়া)
১৯৮৫, গ্রাহাম গোচ (ইংল্যান্ড বনাম অস্ট্রেলিয়া)
১৯৮৫, ডেভিড গাওয়ার (ইংল্যান্ড বনাম অস্ট্রেলিয়া)
১৯৯৩, অর্জুনা রানাতুঙ্গা (শ্রীলঙ্কা বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা)
১৯৯৮, অরবিন্দ ডি সিলভা (শ্রীলঙ্কা বনাম ইংল্যান্ড
১৯৯৮, সনাথ জয়াসুরিয়া (শ্রীলঙ্কা বনাম ইংল্যান্ড)
১৯৯৯, শচীন টেন্ডুলকার (ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা)
২০০১, সাইদ আনোয়ার (পাকিস্তান বনাম বাংলাদেশ)
২০০৯, কুমার সাঙ্গাকারা (শ্রীলঙ্কা বনাম নিউজিল্যান্ড)
২০১৩, মোহাম্মদ হাফিজ (পাকিস্তান বনাম জিম্বাবুয়ে)
২০১৩, অ্যারন ফিঞ্চ (অস্ট্রেলিয়া বনাম ইংল্যান্ড)
২০১৫, চেতশ্বর পুজারা (ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা)
২০১৭, শাই হোপ (উইন্ডিজ বনাম ইংল্যান্ড)
২০১৯, শিবকুমার পেরিয়ালওয়ার (রোমানিয়া বনাম তুর্কি)
২০২০, শাহরিয়ার বাট (বেলজিয়াম বনাম চেক রিপাবলিক)

📁আজকের দিনে যারা ৫ উইকেট নিয়েছিলেন
১৮৮২, ফ্রেড স্পফোর্থ (অস্ট্রেলিয়া বনাম ইংল্যান্ড)
১৯৮১, ডেনিস লিলি (অস্ট্রেলিয়া বনাম ইংল্যান্ড)
২০০১, মুত্তিয়া মুরালিধরন (শ্রীলঙ্কা বনাম ভারত)
২০০১, দানিশ কানেরিয়া (শ্রীলঙ্কা বনাম বাংলাদেশ)
২০০৩, মোহাম্মদ রফিক (বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তান)
২০০৫, ইরফান পাঠান (ভারত বনাম জিম্বাবুয়ে)
২০০৮, সমিত প্যাটেল (ইংল্যান্ড বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা)
২০১০, গ্রিম সোয়ান (ইংল্যান্ড বনাম পাকিস্তান)
২০১৩, টিম ফন দের গাগটেন (নেদারল্যান্ডস বনাম কানাডা)
২০১৪, প্রসপার উতসেয়া (জিম্বাবুয়ে বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা)
২০১৭, নাথান লায়ন (অস্ট্রেলিয়া বনাম বাংলাদেশ)
২০১৯, অঙ্কুশ নন্দ (লাক্সেমবার্গ বনাম তুর্কি)

📁আজকের দিনে যারা মৃত্যুবরণ করেছিলেন
১৯১০, অ্যালান হিল (ইংল্যান্ড)

📁আজকের দিনে যারা জন্মগ্রহণ করেছিলেন
১৮৪২, আলফ্রেড শো (ইংল্যান্ড)
১৯৫৭, স্যান্ডফোর্ড শ্যুলজ (ইংল্যান্ড)
১৯১৩, লেন বাটারফিল্ড (নিউজিল্যান্ড)
১৯২৩, হীরালাল গায়কোয়ার (ভারত)
১৯৩৪, জন গাই (নিউজিল্যান্ড)
১৯৮০, মোহাম্মদ শেখ (কেনিয়া)

 

, , ,

মন্তব্য করুন

এই বিভাগের আরো খবর