ক্রিকেট ইতিহাসে আজকের দিনঃ ৬ আগষ্ট

Naim
  • প্রকাশিত সময় : শুক্রবার, ৬ আগস্ট, ২০২১
  • ১৫৬ ভিউ
  • শেয়ার করুন

আজকের দিনে বাংলাদেশ ক্রিকেট:
৬/৮/২০০৩ প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া।(ওয়ানডে)
ফলাফল: ১১২ রানে জয়ী অস্ট্রেলিয়া।
৬/৮/২০০৬ প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে।(ওয়ানডে)
ফলাফল: ৮ উইকেটে জয়ী বাংলাদেশ।

সাধারণ ঘটনা:

🔘১৯৭৯; বোথামের রেকর্ড!
টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেকের পর দ্রুততম সময়ে ১০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন ইয়ান বোথাম। অভিষেকের পর মাত্র ২ বছর ৯ দিনেই এই রেকর্ড গড়েন ইয়ান বোথাম। যদিও এই রেকর্ড মাত্র ৫ মাস স্হায়ী ছিলো।

🔘১৯৯৬; ৪৮ বছরে এসে ট্রিপল সেঞ্চুরি!
৪৮ বছরে ট্রিপল সেঞ্চুরি, ভাবা যায়? এখন তো ৩৫ পেরিয়ে গেলেই ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে অবসর সময় কাটায় ক্রিকেটাররা। কিন্ত এদের মাঝেও কিছু ক্রিকেটার ৫০+ বছরেও ক্রিকেট মাতিয়েছেন। তাদেরই একজন ডব্লিউ জি গ্রেস! যিনি ৪৮ বছর বয়সে সাক্সেসের বিরুদ্ধে প্রথম শ্রেনীর ক্রিকেটে নিজের তৃতীয় ট্রিপল সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিল।

🔘১৯৯৭; ভারতের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার রানের পাহাড়!
ঘরের মাঠে ভারতের বিপক্ষে জ্বলে ওঠে টিম শ্রীলঙ্কা। জয়াসুরিয়া চালায় ব্যাটিং তাণ্ডব; ৩৬ টি চার এবং ২ ছক্কার বিনিময়ে সংগ্রহ করেন ৩৪০ রান। শ্রীলঙ্কা দ্বার করায় রেকর্ড রান। সেই ইনিংসে ৬ উইকেটের বিনিময়ে লঙ্কান ব্যাটাম্যানরা সংগ্রহ করেন ৯৫২ রান। যা টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসের এক ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। সেদিন জয়াসুরিয়া এবং রওশন ৫৭৬ রানের জুটি গড়ে। যেটি ছিলো তৎকালীন সময়ে সর্বোচ্চ রানের জুটি।

🔘১৯৯৮; মার্ক বুচারের সেঞ্চুরিতে ইংল্যান্ডের সিরিজ জয়!
একটা দিক দিয়ে মার্ক বুচারকে ভাগ্যবান বলায় যায়! কেননা, নিজের মেইডেন টেস্ট সেঞ্চুরির ম্যাচে দলকে সিরিজ জেতাতে সাহায্য করেছেন তিনি। দক্ষিণ আফ্রিকাকে মাত্র ২৩ রানে হারিয়ে ২-১এ সিরিজ জেতার ম্যাচে বুচার হয়েছিলেন ম্যাচ জয়ের নায়ক।

🔘১৯৯৯; অনাকাঙ্ক্ষিত এক রেকর্ডের সাক্ষী পিটার!
চলছিলো নিউজিল্যান্ডে বিপক্ষে ইংল্যান্ডের টেস্ট ম্যাচ। নিউজিল্যান্ডের বোলারদের সামনে দিশেহারা ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের লক্ষ্য ছিলো যতোটা সম্ভব ক্রিজে কাটিয়ে দেওয়া। এই যাত্রায় পিটার ৫১ টি বলের মোকাবিলা করে নামের পাশে কোনো রান যুক্ত করতে পারেনি। শুধু তাই নয়,সেদিন ৭২ মিনিট ক্রিজে থাকলেও রানের দেখা পায়নি পিটার। যদিও মার্ককে রান পেতে সাহায্য করেছিলেন তিনি।

🔘২০১৬; ১৭ বছরের আক্ষেপ পূরণ!
শ্রীলঙ্কায় অস্ট্রেলিয়ার আগমন। টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ জিতে এগিয়ে থাকা লঙ্কাদের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে নেমে স্পিনবিষে দিশেহারা অস্ট্রেলিয়া। পেরেয়ার ১০ উইকেটের সাথে হেরাথের হ্যাটট্রিক! প্রথমবারর মতো অস্ট্রেলিয়াকে ২২৯ রানে হারিয়ে ১৭ বছর পর টেস্ট সিরিজ জিতে শ্রীলঙ্কা।

🔘১৫ পেরিয়ে ১৬ তে আগমন!
সাকিব আল হাসান; বাংলাদেশের জান-প্রাণ! তিনি বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। কিন্তু এই অলরাউন্ডার একদিনে হয়নি। এই স্থানে যেতে নিজেকে প্রমাণ করতে হয়েছে, করতে হয়েছে পরিশ্রম! তার দিনশেষে এখন তিনি বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। আর এই সাকিব ২০০৬ সালের আজকের দিনে ওয়ানডে ক্রিকেটের প্রথম ম্যাচ খেলেছিলো। অর্থাৎ ওয়ানডে ক্রিকেটে আজ ১৪ বছর পেরিয়ে ১৫ বছরে পা রাখলেন।

🎂আজকের দিনে যাদের জন্ম:
১৮৮০- গুস্তাভে ভারহেইন- দক্ষিণ আফ্রিকা।
১৯১১- নরম্যান গর্ডন- দক্ষিণ আফ্রিকা।
১৯৪৭- টনি ডেল- অস্ট্রেলিয়া।
১৯৫৩- ইকবাল কাশিম- পাকিস্তান।
১৯৬৫- ভিন্স ওয়েলস- ইংল্যান্ড।
১৯৬৯- সাইমন ডৌল- নিউজিল্যান্ড।
১৯৭১- পিয়াল বিজেতুঙ্গে- শ্রীলঙ্কা।
১৯৮৪- জেসি রাইডার- নিউজিল্যান্ড।

🔘আজকের দিনে যাদের মৃত্যু:
১৯৪৩- টম গারেট- অস্ট্রেলিয়া।
১৯৯৬- লেন কোল্ডওয়েল- ইংল্যান্ড।
১৯৯৬- গেরি গোমেজ- ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
১৯৯৭- সামার রায়- অস্ট্রেলিয়া।

🔘আজকের দিনে সেঞ্চুরি:
১৯৬৫- কলিন কাউড্র- প্রতিপক্ষ দ. আফ্রিকা।
১৯৭১- রে ইলিংওয়ার্থ – প্রতিপক্ষ ভারত।
১৯৮৫- অ্যালান বর্ডার- প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।
১৯৮৭- মিয়াঁদাদ- প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।
১৯৯৩- মার্ক ওয়াহ প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।
১৯৯৩- বিনোদ কাম্বলি- প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা।
১৯৯৪- পিটার কার্স্টেন- প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।
১৯৯৭- অরবিন্দ ডি সিলভা- প্রতিপক্ষ ভারত।
১৯৯৮- মার্ক বুচার- প্রতিপক্ষ দ.আফ্রিকা।
১৯৯৮- জেন ব্রিটিন- প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া প্রমীলা।
২০০০- ব্রায়ান লারা- প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।
২০০৩- রিকি পন্টিং- প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ।
২০০৬- মোহাম্মদ ইউসুফ- প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।
২০০৬- ইউনুস খান- প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।
২০০৬- শাহরিয়ার নাফীস- প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে।
২০১১- তিলকরত্নে দিলশান- প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া।
২০১৪- ইউনুস খান- প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা।
২০১৫- জো রুট- প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া।
২০১৬- টম লাথাম- প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে।
২০১৭- করুনারত্নে- প্রতিপক্ষ ভারত।
২০২০-শান মাসুদ (পাকিস্তান বনাম ইংল্যান্ড)

🔘আজকের দিনে পাঁচ উইকেট:
১৯৬৫- পিটার পোলক- প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।
১৯৬৬- গারফিল্ড সোবার্স – প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।
১৯৯২- ওয়াসিম আকরাম- প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।
২০০৫- শেন ওয়ার্ন- প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।
২০১২- স্টুয়ার্ট ব্রড- প্রতিপক্ষ দ. আফ্রিকা।
২০১৫- স্টুয়ার্ট ব্রড- প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া।
২০১৬- দিলরুয়ান পেরেরা- প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া।
২০১৭- রবীন্দ্র জাদেজা- প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা।
২০২১- অলি রবিনসন (ইংল্যান্ড বনাম ভারত)  

মন্তব্য করুন

এই বিভাগের আরো খবর