Cricketkhor

"ডাল ভাতের সাথে ক্রিকেট খাই,
টাইগারদের জন্য গলা ফাটাই"

টানা জয়ে সিরিজ নিশ্চিত করলো বাঘিনীরা

Sayem

Sayem

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের আগে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পরপর দুই জয়ে সিরিজ নিশ্চিত করলো টাইগ্রেসরা। এদিন জিম্বাবুয়ে তাদের ইনিংসে শ’রান পার করতে পারলেও তা ব্যাটিং ফ্রেন্ডলি পিচে ডিফেন্ড করার মতো রান ছিলো না, যার ফলে সহজেই জয় পায় বাংলাদেশের মেয়েরা।

বুলাওয়ের কুইন্স স্পোর্টস ক্লাব মাঠে আজ টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় জিম্বাবুয়ে। বেশ কয়েকটি পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামে তারা। অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে মাঠে নামে বাংলাদেশ।

ম্যাচের শুরুর বলেই অভিষিক্ত মায়ার্সকে গোল্ডেন ডাক উপহার দেন জাহানারা আলম। স্কোরবোর্ডে ২ রান যোগ হতে না হতেই এনদিয়ারারে ডাক উপহার দেন সালমা খাতুন। ২ রানে ২ হারানো জিম্বাবুইয়ানদের পরের উইকেট যায় ২২ রানের মাথায়, এবার ফেরেন দলের তারকা ব্যাটার ম্যারি-অ্যান মুসোন্দা (১০)। এরপর চাতোনজাকে নিয়ে ইনিংস গড়ার চেষ্টা করেন মুপাচিকা। ফারজানার দুর্দান্ত থ্রোতে রান আউট হন চাতোনজা (১৪)। একপ্রান্ত আগলে রেখে ৩৩ রান করেন মুপাচিকা, ১৭তম ওভারে রিতুর বলে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি৷

এরপর ব্যাটারদের আসা-যাওয়ার মাঝে এমবোফানা ১৪ ও গুয়ানজুরা অপরাজিত ৩৫ রান করেন। ৪৬.৪ ওভারে ১২১ রানে সবকটি উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। নাহিদা ৩টি, জাহানারা ও সালমা ২টি করে উইকেট নেন।

ছোট টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে এদিনও ব্যর্থ হন শারমিন, চতুর্থ ওভারে ৮ রান করে এমবোফানার শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি। এরপর ক্রিজে আসেন ফারজানা হক। আরেক ওপেনার মুর্শিদা খাতুন ও ফারজানা উভয়ে মিলে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন। ইনিংসের অর্ধেক পার হবার আগেই জয় পায় বাংলাদেশ। চার মেরে বাংলাদেশকে জেতান ফারজানা হক, একই সাথে নিজের ফিফটি তুলে নেন তিনি। ২৫.৩ ওভার হাতে রেখে ৯ উইকেটের জয় পায় বাঘিনীরা। ৬৩ বলে ৫০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন মুর্শিদা, ফারজানা ৬৮ বলে। ম্যাচ শেষে উভয়েই অপরাজিত থাকেন অর্ধশত+ স্কোর নিয়ে।

উক্ত জয়ে দুইটি রেকর্ড গড়লো মেয়েরা।
·একদিবসীয় ক্রিকেটে উইকেটের হিসেবে এটিই সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয় বাংলাদেশের(৯উইকেট)।
·মুর্শিদা খাতুন হ্যাপি ও ফারজানা হক পিংকির রেকর্ড ১১৫* রান দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ সংগ্রহ বাংলাদেশের।

এই জয়ে দেড় বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করলো মেয়েরা, পরশু তারা মাঠে নামবে স্বাগতিকদের হোয়াইটওয়াশ করার লক্ষ্যে। ফেরাটা দারুণ হলো বাঘিনীদের, সামনে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে এই সিরিজ জয়ের কনফিডেন্স কাজে লাগবে নিশ্চয়ই!

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ
জিম্বাবুয়ে ১২১-১০(৪৬.৪)
গুয়ানজুরা ৩৫*, মুপাচিকা ৩৩, এমবোফানা ১৪, চাতোনজা ১৪;
নাহিদা ৯.৪-২-৩০-৩, জাহানারা ৯-৩-২২-২, সালমা ৭-১-২১-২, রিতু ১৯/১, ফাহিমা ১৬/১
বাংলাদেশ ১২৫-১(২৪.৩)
ফারজানা ৫৩*, মুর্শিদা ৫১*, শারমিন ৮;
এমবোফানা ৩০/১।