Cricketkhor

"ডাল ভাতের সাথে ক্রিকেট খাই,
টাইগারদের জন্য গলা ফাটাই"

ইংল্যান্ডের জয়ে গ্রুপ এ-তে জমে উঠেছে সেমির লড়াই

Cricketkhor

Cricketkhor

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শেষ মুহূর্তে চলছে সেমিতে যাওয়ার হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। তবে সবচেয়ে বেশি জমে উঠেছে গ্রুপ-এ তে। ৪ ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া সবাই সেমির দাবিদার। বাকি থাকা এক ম্যাচে যেই পা পিছলাবে সেই ছিটকে যেতে পারে বিশ্বকাপের এবারের আসর থেকে।

আজ ব্রিসবেন এর গ্যাবা স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ৩৩ তম ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামে নিউজিল্যান্ড। সেমির স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে এ ম্যাচের জয়ের বিকল্প ছিলো না ইংলিশদের সামনে। টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা ইংলিশ ওপেনাররা শুরু থেকেই ছিলেন আক্রমণাত্মক ভঙ্গিমায়। আগের দুই ম্যাচেই ব্যর্থ ওপেনিং জুটি আজকের ম্যাচে তুলেছে ৮১ রান। রানে ফিরেছে এলেক্স হেলস ও অধিনায়ক জস বাটলার। মিচেল স্যান্টনার এর বলে কনওয়ের শিকার হয়ে হেলস ৫২ রানে ফিরে গেলে ভাঙে ওপেনিং জুটি।

হেলস আউট হলে রানের চাকা সচল রেখে দলকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন বাটলার। ৮ রানে কিউই অধিনায়ক উইলিয়ামসনের হাতে জীবন পেয়ে খেলেছেন ৭৩ রানের চোখ জুড়ানো ইনিংস। পরবর্তী ব্যাটারদের মধ্যে লিভিংস্টোন এর ২০ রান ছাড়া অন্য কেউ দুই অঙ্কের কোটাও স্পর্শ করতে পারেন নি। ফলে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৭৯ রানের সংগ্রহ পায় ইংল্যান্ড।

বড় রান তাড়া করতে নেমে দলীয় ৮ ও ব্যক্তিগত ৩ রানে ডেভন কনওয়ের বিদায়ের পর ফিন এলেনও ফিরে যান মাত্র ১৬ রান করে। ৩য় উইকেট জুটিতে উইলিয়ামসন ও আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান গ্লেন ফিলিপসের ৯১ রানের পার্টনারশিপে জয়ের স্বপ্ন দেখতে থাকে কিউইরা। তবে উইলিয়ামসন ৪০ রানে বেন স্টোকসের শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরলে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় নিউজিল্যান্ড। গ্লেন ফিলিপস চেষ্টা করলেও সতীর্থদের ব্যর্থতায় ১৫৯ রানেই থামে নিউজিল্যান্ডের ইনিংস। ফিলিপস ৩৬ বলে ৩ ছয় ও ৪ চারে ৬২ রান করে আউট হন। ফলে ২০ রানের জয়ে সেমির দৌড়ে টিকে থাকলো ইংল্যান্ড।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ১৭৯/৬ (২০ ওভার)
জস বাটলার ৭৩, এলেক্স হেলস ৫২, লিয়াম লিভিংস্টোন ২০
লুকি ফারগুসন ৪৫/২, ইশ সৌধি ২৩/১, মিচেল স্যান্টনার ২৫/১

নিউজিল্যান্ড ১৫৯/৬ ( ২০.০ ওভার)
গ্লেন ফিলিপস ৬২, কেন উইলিয়ামসন ৪০, মিচেল স্যান্টনার ১৬*
স্যাম কারেন ২৬/২, ক্রিস ওকস ৩৩/২, মার্ক উড ২৫/১

ফলাফল: ইংল্যান্ড ২০ রানে জয়ী।
ম্যাচ সেরা: জস বাটলার।