২৫শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মাশরাফি ঝলকে ফাইনালে খুলনা

প্রতিবেদক
Musaddik Mitu
সোমবার, ১৪ ডিসেম্বর , ২০২০ ৯:৩২

হোম অফ ক্রিকেট মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথম কোয়ালিফাই ম্যাচে টসে জিতে প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের দলপতি মোহাম্মদ মিথুন!

গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের অধিনায়কের কাছ থেকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ পেয়ে জেমকন খুলনার পক্ষে ব্যাট হাতে ইনিংসের উদ্ভোদন করতে ক্রিজে আসেন জহরুল ইসলাম অমি ও জাকির হাসান! ওপেনিং জুটিতে তারা গড়েন ৭১ রানের দুর্দান্ত পার্টনারশিপ! ব্যাক্তিগত ১৬ রানে রান আউট হয়ে জাকির হাসান সাজঘরে ফিরলে জেমকন খুলনার প্রথম উইকেটের পতন ঘটে!

জাকিরের পর ক্রিজে আসেন ইমরুল কায়েস সাগর! এসেই আক্রমনাত্মক ব্যাটিং করতে থাকা ইমরুল কায়েস ব্যাক্তিগত ২৫ রানে মুস্তাফিজুর রহমানের প্রথম শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরেন! ইমরুলের পর ক্রিজে আসেন সাকিব আল হাসান! অন্যদিকে ওপেনিংয়ে ব্যাটিং করতে নেমে ব্যাট হাতে ফিফটি তুলে নেন জহরুল ইসলাম অমি! ব্যাক্তিগত ৮০ রানে মুসাদ্দেক হুসাইন সৈকতের বলে জহরুল ইসলাম অমি সাজঘরে ফিরলে জেমকন খুলনার তৃতীয় উইকেটের পতন ঘটে।

জহরুলের পর ক্রিজে আসেন জেমকন খুলনার অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ! ক্রিজে এসে আক্রমনাত্মক ব্যাটিং করে জেমকন খুলনার দলপতি দ্রুতই নামের পাশে ৩০ রান যোগ করে সাঞ্জিত সাহার বলে সাজঘরে ফিরেন! রিয়াদের পরে ক্রিজে আসেন আরিফুল হক! শেষ ওভারে রান আউটের ফাদে পড়ে ব্যাক্তিগত ১ রানে সাজঘরে ফিরেন আরিফুল হক!

আরিফুলের পর ক্রিজে আসেন শুভাগত হোম! শুভাগত হোম ক্রিজে আসার পরপরই ব্যাক্তিগত ২৮ রানে মুস্তাফিজুর রহমানের দ্বিতীয় শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরেন সাকিব আল হাসান! সাকিবের পর ক্রিজে আসেন শামীম হুসাইন! ক্রিজে এসে ব্যাক্তিগত ১ রানে রান আউট হয়ে সাজঘরে ফিরেন শামীম হুসাইন! শামীমের পরে ক্রিজে আসেন মাশরাফি বিন মর্তুজা! ক্রিজে এসেই ছক্কা হাকিয়ে দলকে বড় সংগ্রহ পায়িয়ে দিতে সাহায্য করেন মাশরাফি বিন মর্তুজা।

শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২১০ রান সংগ্রহ করে জেমকন খুলনা! জেমকন খুলনার পক্ষে ব্যাট হাতে জহরুল ইসলাম অমি ৮০(৫১) রান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ৩০(৯) রান ও সাকিব আল হাসান ২৮(১৫) রান করেন। গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের পক্ষে বল হাতে মুস্তাফিজুর রহমান ২ উইকেট, মুসাদ্দেক হুসাইন সৈকত ও সাঞ্জিত সাহা ১টি করে উইকেট নেন।

২১১ রানের বিশাল লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের পক্ষে ব্যাট হাতে ইনিংসের সূচনা করতে আসেন লিটন দাস ও সৌম্য সরকার! ওপেনিংয়ে তারা যোগ করে মাত্র ১৩ রান! ব্যাক্তিগত শূন্য রানে মাশরাফি বিন মর্তুজার প্রথম শিকার হয়ে সৌম্য সরকার সাজঘরে ফিরে গেলে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম তাদের প্রথম উইকেট হারায়!

সৌম্যর পর ক্রিজে আসেন মাহমুদুল হাসান জয়! মাহমুদুল হাসান জয় ক্রিজে আসার পর ব্যাক্তিগত ২৪ রানে মাশরাফি বিন মর্তুজার দ্বিতীয় শিকার হয়ে সাজঘরের পথ ধরেন আরেক ওপেনার লিটন দাস! লিটনের পর ক্রিজে আসেন গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের অধিনায়ক মোহাম্মদ মিথুন! তৃতীয় উইকেট জুটিতে জয়-মিথুন গড়েন ৭৩ রানের পার্টনারশিপ! ব্যাক্তিগত ৩১ রানে মাশরাফি বিন মর্তুজার তৃতীয় শিকার হয়ে মাহমুদুল হাসান জয় সাজঘরে ফিরলে ইতি ঘটে তাদের পার্টনারশিপের!

জয়ের পর ক্রিজে আসেন মুসাদ্দেক হুসাইন সৈকত! চার নাম্বারে ব্যাটিং করতে নেমে ব্যাট হাতে ফিফটি তুলে নেন গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের অধিনায়ক মোহাম্মদ মিথুন! শেষ পর্যন্ত ব্যাক্তিগত ৫৩ রানে আরিফুল হকের প্রথম শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরেন মোহাম্মদ মিথুন! মিথুনের পর ক্রিজে আসেন শামসুর রহমান শুভ! শামসুর রহমান ক্রিজে আসার পর ব্যাক্তিগত ১৭ রানে সাকিব আল হাসানের বলে সাজঘরে ফিরেন মুসাদ্দেক হুসাইন সৈকত।

মুসাদ্দেকের পর ক্রিজে আসেন সৈকত আলী! ক্রিজে এসে নামের পাশে ৫ রান যোগ করেই হাসান মাহমুদের প্রথম শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরেন সৈকত আলী! সৈকত আলীর পর ক্রিজে আসেন নাহিদুল ইসলাম! নাহিদুল ক্রিজে আসার পরপরই ব্যাক্তিগত ১৮ রানে মাশরাফি বিন মর্তুজার চতুর্থ শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরেন শামসুর রহমান শুভ!

শামসুরের পর ক্রিজে আসেন মুস্তাফিজুর রহমান! ক্রিজে আসার পর ব্যাক্তিগত শূন্য রানে মাশরাফি বিন মর্তুজার পঞ্চম শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরে যান মুস্তাফিজুর রহমান! মুস্তাফিজের পর ক্রিজে আসেন সঞ্জিত সাহা! সাঞ্জিত ক্রিজে আসার পরপরই ব্যাক্তিগত ৪ রানে হাসান মাহমুদের দ্বিতীয় শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরেন নাহিদুল ইসলাম! নাহিদুলের পর শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিজে আসেন শরিফুল ইসলাম! ব্যাক্তিগত শূন্য রানে শরিফুল ইসলামকে সাজঘরে ফেরত পাঠিয়ে ইনিংসে নিজের দ্বিতীয় উইকেট তুলে নেন আরিফুল হক!

বল হাতে ৪ ওভারে ৩৫ রান দিয়ে ৫ উইকেট নেওয়ায় ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা।

গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের একাদশঃ- লিটন, সৌম্য, জয়, মিথুন(ক্যাপ্টেন), মুসাদ্দেক, শামসুর, সৈকত, নাহিদুল, মুস্তাফিজ, সাঞ্জিত সাহা, শরিফুল!

জেমকন খুলনার একাদশঃ- জহরুল, জাকির, ইমরুল, সাকিব, মাহমুদুল্লাহ(ক্যাপ্টেন), আরিফুল, শুভাগত, শামীম, মাশরাফি, হাসান, আল-আমিন।

মতামত জানান :