২৫শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মরগানের ব্যাটিং ঝড়ে ইংল্যান্ডের জয়

প্রতিবেদক
Arfin Rupok
রবিবার, ৩০ আগস্ট , ২০২০ ১১:১৭

তিন ম্যাচ টি-২০ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে আজ ম্যানচেস্টারে মুখোমুখি লড়াইয়ে মাঠে নামে সফরকারী পাকিস্তান এবং স্বাগতিক ইংল্যান্ড। টস নামক ভাগ্য পরীক্ষায় জয়লাভ করে ইংলিশ অধিনায়ক বেছে নেন বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত।

ইংলিশ অধিনায়ক মরগানের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে ব্যাটিংয়ে নামেন পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম এবং মারমুখী ব্যাটসম্যান ফখর জামান। ইংল্যান্ডের হয়ে বোলিংয়ে আসেন সাকিব মাহমুদ। পাকিস্তানের শুরুটা হয় উড়ন্ত। দুই ওপেনার পাওয়ার প্লেতে যুক্ত করেন ৫১ রান। বাবর-ফখর জুটি যখন বড় রানের আভাস দিচ্ছিলো ঠিক তখনই রশীদের স্পিন ঘূর্ণিতে ফখরের বিদায়। পাকিস্তানের সংগ্রহ তখন ১ উইকেটে ৭২ রান।

ফখরের বিদায়ের পর ওয়ান ডাউনে ব্যাটিংয়ে নামেন মোহাম্মদ হাফিজ। অপরদিকে বাবর খেলে যান নিজের স্বভাবসুলভ ব্যাটিং। দারুণ ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নেওয়া বাবরকে দলীয় ১১২ রানে নিজের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত করেন রশীদ। ফিরে যাওয়ার আগে ৪৪ বলে ৭ চারের সাহায্যে বাবর খেলেন ৫৬ রানের ইনিংস। অধিনায়ক বাবরের বিদায়ের পর ক্রিজে আসেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান শোয়েব মালিক।

অভিজ্ঞ হাফিজের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের সাথে মালিকের স্ট্রাইকরোটেট ব্যাটিংয়ে পাকিস্তান বড় স্কোরের দিকে এগিয়ে যায়। সেই সাথে মোহাম্মদ হাফিজ দ্বিতীয় পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান হিসেবে টি-২০ ক্রিকেটে ২০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন। তৃতীয় উইকেট জুটিতে ৫০ রান তুলে মরগানের অসাধারণ এক ক্যাচে বিদায় নেন মালিক। ম্যাচের বাকি সময়ে হাফিজের ব্যাটিং ঝড়ে পাকিস্তানের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৪ উইকেটে ১৯৫ রান।

পাকিস্তানের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৯ রান আসে মোহাম্মদ হাফিজের ব্যাটে, এছাড়াও বাবর আজম ৫৬ এবং ফখর ৩৬ রান করেন। ইংল্যান্ডের বোলারদের পক্ষে রশীদ ২ টি এবং জর্ডান, কুরান ১ টি করে উইকেট শিকার করেন। ইংল্যান্ডের সামনে জয়ের লক্ষ্যমাত্রা দাঁড়ায় ১৯৬ রান।

১৯৬ রানের জয়ের লক্ষ্যে ইংল্যান্ডের হয়ে ওপেনিংয়ে আসেন টম ব্যানটন এবং জনি বেয়ারস্টো। পাকিস্তানের হয়ে বোলিংয়ে আসেন ইমাদ ওয়াসিম। ১৯৬ রানের বিশাল লক্ষ সামনে রেখে ব্যাটিংয়ে নামা দুই ওপেনারের ব্যাটে ইংল্যান্ড পায় উড়ন্ত সূচনা। শুরু থেকেই মারমুখী ব্যাটিং করতে থাকেন দুই ওপেনার। পাওয়ার প্লে শেষে ইংল্যান্ডের স্কোর বিনা উইকেটে ৬৫ রান।

ইংল্যান্ডের দুই ওপেনারের ব্যাটে জয়ের স্বপ্ন দেখতে থাকে ইংল্যান্ডের ভক্তরা। ঠিক তখনি বেয়ারস্টোর বিদায় ঘন্টা বাজিয়ে দেন স্পিনার শাদাব খান। বেয়ারেস্টোর বিদায়ের পরের বলেই বিদায় নেন আরেক ওপেনার ব্যানটন। ইংল্যান্ড শিবিরে দারুণ ব্যাটিং বিপর্যয়ের সময় ক্রিজে আসেন মালান এবং অধিনায়ক মরগান।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে অধিনায়ক মরগানের সাথে মালানের দারুণ ব্যাটিংয়ে ইংল্যান্ড জয়ের সুবাস পেতে থাকে। ঠান্ডা মাথায় মালান দলকে এগিয়ে নিলেও মরগান ছিলেন উড়ন্ত। চার ছক্কায় তুলে নেন ফিফটি। অপরদিকে মালান তুলে নেন আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটে ৫০০ রান। তৃতীয় উইকেট জুটিতে মরগান-মালান যুক্ত করেন ১১২ রান। এরপর দলীয় ১৭৮ এবং ব্যক্তিগত ৬৬ রানে মরগান আউট হলেও এক প্রান্ত আগলে রেখে মালান তুলে নেন ফিফটি। সেই সাথে ইংল্যান্ড জয় পায় ৫ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে।

ইংল্যান্ডের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৬ রানে আসে অধিনায়ক মরগানের ব্যাটে। এছাড়াও মালান ৫৪ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন। পাকিস্তানের বোলারদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩ টি উইকেট শিকার করেন শাদাব খান। এছাড়াও হারিস শিকার করেন ২ উইকেট।

স্কোরকার্ড:

পাকিস্তান ১৯৫/৪(২০)
হাফিজ ৬৯(৩৬), বাবর ৫৬(৪৪), ফখর ৩৬(২২), মালিক ১৪(১১), ইফতেখার ৮(৯)
আদিল রশীদ ৩২/১, ক্রিস জার্ডান ৪১/১, টম কুরান ৪৬/১

ইংল্যান্ড ১৯৯/৫(১৯.১)
মরগান ৬৬(৩৩), মালান ৫৪*(৩৬), বেয়ারেস্টো ৪৪(২৪), ব্যান্টন ২০(১৬)
শাদাব খান ৩৪/৩, হারিস ৩৪/২

ফলাফল: ইংল্যান্ড ৫ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচ সেরা: ইয়ন মরগান।
সিরিজ ফলাফল: ১-০ তে এগিয়ে ইংল্যান্ড(৩ ম্যাচ সিরিজ)

, ,

মতামত জানান :